আবারও বাংলাদেশে জনগণের স্বাধীনভাবে ভোট দেয়া নিশ্চিত করতে বললো জাতিসংঘ

0
8

জাতিসংঘ আবারও জানিয়েছে, বাংলাদেশে অবাধ, শান্তিপূর্ণ ও অন্তর্ভুক্তিমূলক জাতীয় নির্বাচন দেখতে চায় তারা। যেখানে শাসক ও বিরোধীদলসহ সবার অংশগ্রহণ থাকবে। শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদরদপ্তরে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানান সংস্থাটির মহাসচিবের মুখপাত্র স্টেফান ডুজারিক।

তিনি বলেন, নির্বাচনের সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্টরা, ক্ষমতাসীন সরকার, বিরোধী দল, সাংবাদিক, সুশীল সমাজ-সবাই মিলে ভোটদান নিশ্চিত করতে কাজ করুন। যেন মানুষ মুক্তভাবে নিজেদের মত প্রকাশ করতে পারেন। সেই সঙ্গে জনগণ স্বাধীনভাবে ভোট দিতে পারেন। নির্বাচন যাতে অন্তর্ভুক্তিমূলক ও শান্তিপূর্ণ হয়, সেদিকে নজর রাখুন। এসবই আমাদের চাওয়া ও পরামর্শ। 

বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনী প্রক্রিয়ার প্রচারের জন্য মানুষ, দল ও গণমাধ্যমসহ সব স্টেকহোল্ডারকে কাজ করার আহ্বান জানান জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র। এদেশে আসন্ন নির্বাচনের বিষয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এই আহ্বান জানান স্টেফান ডুজারিক। 

তিনি বলেন, আমি আগেও যা বলেছি, এখনও তা বলছি। এই নির্বাচন বাংলাদেশের মানুষের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জাতিসংঘ মহাসচিব এতে গুরুত্বারোপ করেছেন। যাতে সবাই শান্তিপূর্ণ, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনী প্রক্রিয়া প্রচারের জন্য কাজ করতে পারেন।

ইতোমধ্যে নির্বাচন বয়কট করেছে বিএনপিসহ প্রধান বিরোধী দলগুলো। ক্ষমতাসীন সরকার আওয়ামী লীগের পদত্যাগ এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে এই পথে হেঁটেছে তারা। সেই চাপেরও মধ্যেই আগামী ৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের জন্য প্রস্তুত রয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এরই মধ্যে বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখার কথা জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নও (ইইউ)।