আর্জেন্টিনার জন্য যত সহজ ব্রাজিলের জন্য ততটাই কঠিন হবে!

0
7

কোপা আমেরিকার ফাইনাল ডাকছে আর্জেন্টিনাকে। সেই পথ পাড়ি দিতে দুটি পরীক্ষায় পাশ করতে হবে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। যেখানে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যদের আটকানো প্রায় অসম্ভব। ঠিক সেই মুহূর্তে ফুটবলের আরেক পরাশক্তি ব্রাজিল আটকে গেছে গোলকধাঁধায়। গতকাল গ্রুপ পর্বের শেষদিনে ব্রাজিল থমকে গেছে কলম্বিয়ার বিপক্ষে। জয়ের আশা নিয়ে সেলেসাও বাহিনী মাঠে নামলেও ১-১ গোলের ড্র নিয়ে খেলা শেষ করতে হয়েছে।

ড্র করে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে দলটি, যেখানে উরুগুয়ের বিপক্ষে লড়াই করতে হবে দরিভাল জুনিয়রের শিষ্যদের। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে নামার আগে দুঃসংবাদে বিদ্ধ হয়েছে ব্রাজিল। দলটির তারকা উইঙ্গার ভিনিসিয়ুস জুনিয়র খেলতে পারবেন না লুইস সুয়ারেজদের বিপক্ষে। তাতে মহাবিপদে পড়েছে দলটি।

কোপা আমেরিকায় স্বপ্নের মতো উড়ছে আর্জেন্টিনা। প্রথম ম্যাচে কানাডার বিপক্ষে লিওনেল মেসিদের কিছুটা এলোমেলো লাগলেও জয় তুলে নিতে ভুল করেননি তারা। এরপরে চিলি ও পেরুর বিপক্ষে নিজেদের জাল নিরাপদে রেখে জয় তুলে কোয়ার্টার ফাইনালে তারা পেয়েছে ‘বি’ গ্রুপ রানার্সআপ ইকুয়েডরকে। আগামীকাল সকাল ৭টায় এই দুই দলের লড়াই শুরু হবে যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টনে। ৮০ হাজার ধারণক্ষমতার এনআরজি স্টেডিয়ামে আর্জেন্টিনাই ফেভারিট হিসেবে থাকবে।

এখন পর্যন্ত এই দুই দলের মুখোমুখি দেখা হয়েছে ১৭ বার। এর মধ্যে ৯ বার আর্জেন্টিনা ও ৩ বার জয় পেয়েছে ইকুয়েডর, বাকি ৫টি ম্যাচ হয়েছে ড্র। সবশেষ ২০১৫ সালে ইকুয়েডর মেসিদের বিপক্ষে জয় পেয়েছিল। এরপরের ৭ দেখার কোনোটিতে তারা জয় পায়নি। তাতে স্কালোনির শিষ্যরা বেশ স্বস্তি নিয়েই ম্যাচটিতে খেলতে পারবে।

কোয়ার্টার ফাইনালে জয় পেলে সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হবে ভেনেজুয়েলা/কানাডা। তাতে সেমিতেও কাতার বিশ্বকাপ জয়ীদের কঠিন পরীক্ষা দিতে হচ্ছে না। যদি কানাডা সেমিতে ওঠে তাহলে গ্রুপ পর্বে তাদের হারিয়ে আসার অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে মেসিদের। আর ভেনেজুয়েলা হলে অতীত পরিসংখ্যান এগিয়ে রাখবে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। এখন পর্যন্ত ১৪ বার মুখোমুখি হয়ে আর্জেন্টিনা জয় পেয়েছে ১০ বার। ২ জয় রয়েছে ভেনেজুয়েলার, বাকি ২টি ম্যাচ হয়েছে ড্র। তাতে কোপা আমেরিকার এবারের ফাইনালও হাতছানি দিচ্ছে মেসিদের।

আগামীকাল সকালের ম্যাচে দলের বড় তারকা মেসিকে পাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে। হালকা চোটে ভুগছেন তিনি। যদিও আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম বলছে, মেসিকে খেলানোর জন্য সব ধরনের চেষ্টা করবেন কোচ। শুরুর একাদশে না হলেও বেঞ্চে রেখে পরে তাকে মাঠে নামানোর চিন্তা করছেন স্কালোনি।

আর্জেন্টিনার সামনের রাস্তা পরিষ্কার দেখালেও শঙ্কা নিয়ে পথ পাড়ি দিতে হবে ব্রাজিলকে। গেলবার কোপার ফাইনালে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হেরে শিরোপা থেকে বঞ্চিত হয়েছে হলুদ জার্সিধারীরা। এবার ফাইনালের মঞ্চে পা রাখার আগে কঠিন পরীক্ষায় পড়েছে তারা। গেল বছরের অক্টোবরে ২-০ গোলে হেরে আসা উরুগুয়ের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলতে হবে ব্রাজিলকে। পরিসংখ্যান ব্রাজিলকে এগিয়ে রাখলেও সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচের মধ্যে মাত্র ১টিতে জয় তুলে নিতে পেরেছে ব্রাজিল। বাকি দুটিতে ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে।

এরপরে দলের বড় তারকা নেইমার জুনিয়র না থাকায় বেশ অস্বস্তিতে রয়েছে দলটি। আল-হিলালের তারকাকে গ্যালারিতে বসেই খেলা দেখতে হচ্ছে। সেই মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে ভিনিসিয়ুসের নিষেধাজ্ঞা। পরপর দুই ম্যাচে হলুদ কার্ড দেখায় কোয়ার্টার ফাইনালে উরুগুয়ের বিপক্ষে খেলতে পারবেন না ভিনি। রিয়াল মাদ্রিদের এই তারকার বদলে মাঠে দেখা যেতে পারে এন্দ্রিককে।

এ দিকে শেষ আটে উরুগুয়ের বিপক্ষে খেলা নিয়ে চিন্তা করছেন না আরেক ফরোয়ার্ড রাফিনিয়া। গতকাল ড্র করে তিনি বলেছেন, ‘আমরা যে ফলের আশায় খেলতে নেমেছিলাম, সেটি পাইনি। আমরা আরও ভালো অবস্থানে থেকে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সেই আশা পূরণ হলো না। তবে এই মুহূর্তে আমরা প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবছি না। আপনাকে চ্যাম্পিয়ন হতে চাইলে প্রতিপক্ষ নিয়ে দুশ্চিন্তা করা যাবে না। আমরা নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলতে চাই।’ ভিনির বদলি হিসেবে যেই এন্দ্রিককে মাঠে নামানোর কথা চিন্তা করছে ব্রাজিল, সেই তরুণ তারকা বলেছেন, ‘ভিনির বদলি খেলোয়াড় বের করা খুব কঠিন। তাকে ছাড়া ম্যাচটিতে কিছুটা বেগ পেতে হবে। তবে দলের প্রত্যেকেই ভালো খেলার জন্য মুখিয়ে রয়েছে।’

কোপা আমেরিকা কোয়ার্টার ফাইনাল সূচি

তারিখ ম্যাচ সময় ভেন্যু

৫ জুলাই আর্জেন্টিনা-ইকুয়েডর সকাল ৭টা হিউস্টন

৬ জুলাই ভেনেজুয়েলা-কানাডা সকাল ৭টা আর্লিংটন

৭ জুলাই কলম্বিয়া-পানামা ভোর ৪টা গ্লেনডেল

৭ জুলাই ব্রাজিল-উরুগুয়ে সকাল ৭টা লাস ভেগাস