ইসরায়েলী ধ্বংসযজ্ঞে অবশেষে সৌদি আরবের নিন্দা

0
22

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: পশ্চিমতীরে হামলা ও ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে ফিলিস্তিনিদের মৌলিক অধিকারের ‌‘গুরুতভাবে লঙ্ঘনের’ ঘটনায় অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরায়েলের নিন্দা জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশ সৌদি আরব। রবিবার (১৬ মে) দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল-সৌদ ইসরায়েল যে বর্বর হামলা চালিয়ে আসছে তার নিন্দা জানিয়েছেন। খবর আল জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েলের নিন্দা জানানোর পাশপাশি অবিলম্বে ইসরায়েলি সামরিক অভিযানের অবসানে করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ব্যবস্থা নেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন।

এই হামলার বিষয়ে রবিবার জরুরি বৈঠক ডেকেছে ইসলামিক সহযোগিতা পরিষদ (ওআইসি)। সংস্থাটির সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ওই বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। ইসলামিক সহযোগিতা পরিষদের (ওআইসি) ৫৭ সদস্যের এক জরুরি ভার্চুয়াল বৈঠকের শুরুতে টেলিভিশনে রেকর্ডকৃত বক্তব্যে প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ নিন্দার বিষয়টি তুলে ধরেন। পাশাপাশি সামরিক হামলা বন্ধের জন্য জরুরি পদক্ষেপ নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান।

সম্মেলনে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভাসগ্লু ইসরাইলি হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ফিলিস্তিনি ভাই-বোনদের বাঁচাতে আমরা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সব প্রকার চেষ্টা অব্যাহত রাখবো। ওআইসির নির্বাহী কমিটির সদস্যদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ফিলিস্তিনিদের ওপর নিপীড়ন বন্ধ করা আমাদের সকলের মানবিক দায়িত্ব।

গত ৭ দিন ধরে গাজা উপত্যকায় ১৮১ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৫২ জন শিশু। আহত হয়েছে হাজারের বেশি মানুষ। পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনী অন্তত ১৩ জনকে হত্যা করেছে। আর গাজা থেকে ছোড়া রকেট হামলায় ২ শিশুসহ মারা গেছে অন্তত ১০ ইসরায়েলি। গ্লোবাল টাইমস।এদিকে ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সহিংসতাকে “অগ্রহণযোগ্য” বলেছেন পোপ ফ্রান্সিস। ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি হামলা নিয়ে প্রথমবারের মতো মুখ খুললেন পোপ ফ্রান্সিস। সেন্ট পিটার্স স্কয়ারে সাপ্তাহিক ভাষণে বিশেষত শিশুদের মৃত্যুর বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, তারা ভবিষ্যৎ গড়তে চায় না, বরং এটি ধ্বংস করতে চায়।