গুলিস্তানসহ সাম্প্রতিক সব বিস্ফোরণে অধ্যাপক পারভেজের উদ্বেগ

    0
    25

    নিউজ ডেস্ক : সিএনএন বাংলাদেশ :: গত ৭ মার্চ রাজধানীর গুলিস্তানে সিদ্দিক বাজারে বিআরটিসি বাস কাউন্টারের পাশে একটি ভবনে বিস্ফোরণে ১৮ জন নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছে। সাধারণ জ্ঞান ও কান্ডজ্ঞান সম্পন্ন নাগরিক সমাজ এই বিষয়কে একদম নিছক দূর্ঘটনা হিসাবে গ্রহণ করেনি বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও এনবিইআর’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ। সংবাদ মাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, র‍্যাবের মেজর মশিউর রহমান বলেনছেন- প্রাথমিকভাবে ধারনা করা যাচ্ছে বিস্ফোরণ ভবনের বেজমেন্ট থেকে হয়েছে। এটিকে স্বাভাবিক কোনো বিস্ফোরণ মনে হচ্ছেনা। গ্যাস জমে কিংবা অন্য কোনোভাবে বিস্ফোরণ ঘটেছে। এসি থেকে এ ঘটনা ঘটেনি এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।
    গত ৫ই মার্চ সাইন্সল্যাবে অপর একটি বিস্ফোরণের ঘঠনা ঘটে, সর্বেশেষ তথ্য মতে ৩ জন নিহত এবং ১৩ জন আহত এবং প্রচুর সহায় সম্পত্তির ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।
    ৪ মার্চ চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে অক্সিজেন প্ল্যান্টের বিস্ফোরণের ঘটনায় ৭ জন নিহত এবং অর্ধ-শতাধিকের বেশি আহত হয়েছে।
    ৪, ৫ ও ৭ ই মার্চের পরপর সিরিজ বিস্ফরণের ঘটনা দৈব দুর্ঘটনা কিনা তা নিয়ে জনমনে সংশয় দেখা দিয়েছে। এই ধরণের আপেক্ষাকৃত ছোট বিস্ফোরণের কারণ জনসম্মুখে তুলে ধরার জন্য প্রয়োজনীয় দ্রুত তদন্ত করার ক্ষমতা কি আমাদের নেই? সত্য দ্রুত জনসম্মুখে প্রকাশ করা না হলে বাস-সিএনজি তে আগুন লাগানোর অতীত নিষ্ঠুট ঘটনার মতো এই সব প্রাণহারী বিস্ফোরণ নিয়ে রাজনৈতিক দোষারোপ শুরু হতে পারে। সাধারণ মানুষের জীবন অনাদরে অবহেলায় মূল্যহীন যেন না হয়, সেই ব্যাপারে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি এবং আমার প্রিয় দেশবাসীকে আগামী কিছু দিন সতর্কতার সাথে চলাচল ও জীবন যাপন করার অনুরোধ জানাচ্ছি। বাংলাদেশের রাজনীতি ও আগামীর নির্বাচনকে সামনে রেখে সাধারণ মানুষের জীবন নিয়ে খেলা না করার জন্য সকল পক্ষকে অনুরোধ জানাচ্ছি।

    লেখক : অর্থনীতিবিদ ও চেয়ারম্যান, এনবিইআর ( লেখাটি একান্তই লেখকের অভিমত)