থানার গেটে আ.লীগ নেতার কিল-ঘুষিতে বৃদ্ধের মৃত্যু

0
17

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের ধাক্কা ও কিল-ঘুষিতে এক বৃদ্ধের করুণ মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ।শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে দামুড়হুদা মডেল থানার সামনে এ ঘটনা ঘটে। মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।নিহত ইসরাফিল হোসেন মন্ডল উপজেলার পীরপুরকুল্লা গ্রামের বাসিন্দা। এ ঘটনায় বিষয়টি নিয়ে জেলা জুড়ে সব মহলেই তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।আটক শহিদুল ইসলাম দামুড়হুদা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দামুড়হুদা বাজারপাড়ার আশর আলীর ছেলে।জানা যায়, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ মীমাংসার উদ্দেশে শুক্রবার দুপুরে দামুড়হুদা মডেল থানায় গিয়েছিলেন বৃদ্ধ ইসরাফিল হোসেন (৮০) ও তার লোকজন। এ সময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম থানায় উপস্থিত হন এবং ইসরাফিলের বিপক্ষের লোক নজুদের পক্ষ নিয়ে কথা বলেন। কিন্তু শেষমেশ বিরোধ নিষ্পত্তি না হওয়ায় বেলা দেড়টার দিকে থানা থেকে বের হয়ে যান ইসরাফিলরা।এতে ক্ষুব্ধ হন ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম। তিনি থানার বারান্দাতেই বৃদ্ধ ইসরাফিল হোসেন মণ্ডলকে গালমন্দ করেন এবং থানার গেটের সামনে কিল ঘুষি মেরে আহত করেন। তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।দামুড়হুদা থানার ওসি আব্দুল খালেক বলেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে আটক করা হয়েছে। অন্যদের আটকে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মরদেহ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।