দারিদ্র্যতামুক্ত সুশৃঙ্খল সরফভাটা ইউনিয়ন বিনির্মানে জীবন উৎসর্গ করতে চায় তরুণ রাজনীতিক আবু তাহের

0
18

ডেস্কঃ রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটা ইউনিয়নের কৃতি সন্তান, সাবেক ছাত্রনেতা, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, তরুণ রাজনীতিক আবু তাহের সরফভাটা ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি (চেয়ারম্যান) হওয়ার সুযোগ পেলে দারিদ্র্যতা মুক্ত সুশৃঙ্খল সরফভাটা ইউনিয়ন বিনির্মানে জীবন উৎসর্গ করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বুকে ধারণ ও লালন করে এগিয়ে যাওয়া অধম্য এই তরুণ ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা ১৯৭৮ সালে সরফভাটা ইউনিয়নের এক মধ্যবিত্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তাহার পিতার নাম হাজী আহমদ সফু ও মাতা ছফুরা বেগম। তাঁর দাদা প্রয়াত হাজী তফাজ্জল হোসেন মাতুব্বর এলাকার একজন স্বনামধন্য লোক হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

আবু তাহের ১৯৯৫ সালে সরফভাটা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ১৯৯৯ সালে রাঙ্গুনিয়ার সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ রাঙ্গুনিয়া কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন।

ছাত্রজীবনে পরিছন্ন ছাত্র রাজনীতিতে অবদান রেখেছিলেন আবু তাহের। তিনি ১৯৯৭ সালে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১৯৯৬ সালে রাঙ্গুনিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের নাট্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক এর দায়িত্বে ছিলেন। বর্তমানে তিনি উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য হিসেবে সরফভাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের রাজনীতির মাঠে সক্রিয় আছেন। ১/১১ সময় তৎকালীন সেনা শাসক দ্বারা রাজনৈতিক কারণে গ্রেফতার হয়ে নির্যাতনের শিকার হন এই ত্যাগী ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিক আবু তাহের। ছাড়া পেয়ে বিদেশে পালিয়ে গিয়ে অর্থনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হন নির্যাতিত সাবেক ছাত্রনেতা আবু তাহের। বর্তমানে তিনি মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডে সহযোগিতা করে এলাকায় দানবীর হিসেবে খ্যাত হয়েছেন। করোনা ভাইরাসে লকডাউন এর সময় সরফভাটার কর্মহীন হয়ে পড়া অায়হীন গরীব জনগোষ্ঠীর মাঝে তাঁর সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত রয়েছে।

গত ৩রা নবেম্বর ২০২০ সকাল ১১ ঘটিকায় স্থানীয় এক কমিউনিটি সেন্টারে জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা সরফভাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রউফ মাস্টারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিবের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় নির্মাণাধীন সরফভাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ৬ লক্ষ টাকা সরফভাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রউফ মাস্টার ও সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব এর নিকট প্রদান করেন তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা আবু তাহের।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইকবাল হোসেন, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিএমএ নেতা ডাঃ মোহাম্মদ সেলিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক নিজাম উদ্দিন বাদশা, সরফভাটা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মজিবুল ইসলাম সরফি, সরফভাটা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউনুস, শামসুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম, ইলিয়াছ মেম্বার, মোঃ হারুন, খোরশেদ আলম সুজন, মাহাবুব আলম, জাহাঙ্গীর আলম, আবু তালেব সানি, হাসান মুরাদ, খোরশেদ আলম, মুহির উদ্দিন মহির, শাহ আলম, জামাল উদ্দিন, ছাত্রনেতা মোঃ সেলিম।

সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ডে সহযোগিতা প্রসঙ্গে আবু তাহের প্রতিবেদককে বলেন, এলাকার মানুষের যে কোন বৈধ প্রয়োজনে আমি পাশে ছিলাম, আছি ও থাকবো। রাঙ্গুনিয়ার স্রেষ্ঠ সন্তান, আমাদের প্রিয় নেতা মাননীয় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি আজ বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। তাঁর জন্য সমগ্র দেশব্যাপী রাঙ্গুনিয়ার মান মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে। তাঁর নিজের এলাকা বলে রাঙ্গুনিয়ায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছে। আমি এই উন্নয়ন কর্মকান্ড প্রচার-প্রসারে এলাকার জনগনের সারথি হয়ে থাকতে চাই।

তিনি বলেন, প্রিয় নেতা ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয়ের হাত ধরে কোনদিন সরফভাটা ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি হয়ে জনসেবা করার সুযোগ পেলে এলাকার উন্নয়ন বেগবান করার পাশাপাশি স্ব-উদ্যোগে বেকার যুবক-যুবতীদেরকে ফ্রী প্রশিক্ষনের মাধ্যমে কর্মউপযোগী করে আত্মনির্ভরশীল করে তুলবো। মাদক, ইভটিজিং, সন্ত্রাস, দারিদ্র্যতা মুক্ত সুশৃঙ্খল সরফভাটা ইউনিয়ন বিনির্মান আমার লক্ষ্য। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে রাঙ্গুনিয়ার কৃতি সন্তান, সরকারের তথ্যমন্ত্রী, রাঙ্গুনিয়ায় হাজার কোটি টাকার উন্নয়নের কান্ডারী ড. হাছান মাহমুদ এমপির নেতৃত্বে চলমান উন্নয়নে নিজের জীবনকে উৎসর্গ করতে চায় সরফভাটার পরিচ্ছন্ন রাজনীতিক, তরুণ ব্যবসায়ী আবু তাহের।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে