দেড় মাস পর একনেক বসছে কাল

0
7

সরকারের সব উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা। প্রতি সপ্তাহে নিয়মিত অনুষ্ঠিত হলেও চলতি বছরের শুরু থেকে অনেকটাই অনিয়মিত হয়ে পড়েছে একনেক। এদিকে সর্বশেষ একনেক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে ১৬ মার্চ। দেড় মাসের বেশি সময় বিরতির পর আগামীকাল মঙ্গলবার (৪ মে) একনেক সভা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী দফতরের উপপ্রধান তথ্য অফিসার মো. শাহেদুর রহমান জানিয়েছেন, মঙ্গলবার একনেক সভা অনুষ্ঠিত হবে। বেলা সাড়ে ১০টায় একনেক শুরু হবে। একনেক সভার সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সূত্র বলছে, চলতি বছরের প্রায় সাড়ে তিন মাসে এখন পর্যন্ত মাত্র চারটি একনেক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম একনেক অনুষ্ঠিত হয় গত ৫ জানুয়ারি। ওই সভায় ছয়টি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। এর প্রায় এক মাস পর ৩ ফেব্রুয়ারি একনেকে আট প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। এরপর একনেক অনুষ্ঠিত হয় ১৬ ফেব্রুয়ারি, তাতে নয়টি প্রকল্প অনুমোদন পায়। তারপর সর্বশেষ একনেক অনুষ্ঠিত হয়েছে ১৬ মার্চ, তাতে ছয় প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। চার একনেকে নতুন ও সংশোধিত মিলিয়ে মোট ২৯টি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়।

পরিকল্পনা কমিশনের কর্মকর্তারা বলছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে প্রায় প্রত্যেক সপ্তাহেই একনেক অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০২০ সালে করোনা সংক্রমণ শুরু হলে তখনও অনিয়মিতভাবে একনেক অনুষ্ঠিত হয়। সংক্রমণ কমলে ফের নিয়মিতভাবে চলেছে একনেক। কিন্তু ২০২১ সালের শুরু থেকেই একনেক কম অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সম্প্রতি এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জাগো নিউজকে বলেছেন, ‘একনেক হচ্ছে না, কারণ মনোযোগের বেশিরভাগটা নিয়ে গেছে করোনা। দ্বিতীয়ত, আমার এখানে যারা কাজ করে, এসব ক্ষেত্রে যারা কুশীলব, যারা কাগজপত্র ঘাটাঘাটি করে, কাজ করে, তাদের অনেককেই আমরা ছুটি দিয়েছি করোনাজনিত কারণে। লোক কমিয়ে আনা হয়েছে অফিসের। উপস্থিতি কম। সুতরাং প্রকল্পের কাগজগুলো কম গতিতে এগোচ্ছে। আগে যেখানে লাগত এক সপ্তাহ, এখন সেখানে লাগছে এক মাস। ফলে মিটিং করে তো লাভ নাই, যদি কাগজ হাতে না থাকে আমাদের। এজন্য মিটিং আমরা কম করছি আগের তুলনায়। এটা সাময়িক একটা ব্যাপার।’