পাঁচলাইশ থানার ওসি এস আই ও ভুক্তভোগী বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার প্রত্যাহার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

0
42

চট্টগ্রাম: নগরের পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে ৫০ লাখ টাকার চাঁদা দাবি করার অভিযোগে আদালতে দায়ের করা মামলাটি মিথ্যা, বানোয়াট ও হয়রানিমূলক বলে দাবি করেছেন মামলার আরেক আসামি ডা. আহমেদ ফয়সাল চৌধুরী ।  

শনিবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সুলতান আহমেদ হলে পাঁচলাইশ থানা পুলিশের বিরুদ্ধে ৫০ লাখ টাকা দাবির কথিত ঘটনা ও মামলা নিয়ে  সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন ডা. আহমেদ ফায়সাল চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নগরের হামজারবাগ এলাকায় আমার তিন ভাইবোনে মিলে মোট ১৫ গন্ডা জায়গা ক্রয় করি এবং নিজেদের একটি কোম্পানি গঠন করে তাতে হস্তান্তর করি ১৯৯২ সালে। আমরা বিদেশ থাকা অবস্থায় আমার বাবা বাড়িতে দেখাশোনার জন্য একজন শামীমা আখতার নামে এক মহিলাকে কেয়ারটেকার নিয়োগ দেন, তিনি তার পরিবার, স্বামী নুরুদ্দিন ও এক মেয়ে তানজিলা রুহীকে নিয়ে সেখানে বসবাস করতেন। এই সুযোগে তারা কোম্পানির দলিলপত্র গুলো জালিয়াতি করে তাদের নামে হস্তান্তর করে, তার প্রেক্ষিতে মামলা করে হাইকোর্ট আমাদের পক্ষে রায় দেন।  

বর্তমানে শামীমা আমাদের কোম্পানি যাবতীয় ঘর ভাড়া উত্তোলন করে নিয়ে যায় জানিয়ে ডা. আহমেদ ফায়সাল চৌধুরী বলেন, গত ১৪ জানুয়ারি পাঁচলাইশ থানায় জিডি করা হয়, সেটার তদন্ত শুরু করে। শামীমা অনুরূপ দলিলপত্র প্রদর্শন করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয় এবং নানা রকম অজুহাত শুরু করেন। গত ১৬ আগস্ট আমাদের কোম্পানির মালিকানাধীন বাড়িতে একজন কেয়ারটেকার রাখলে, শামীমা কিছু বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে আমাদের উপর হামলা করে। পরবর্তীতে আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা নিই, অবস্থার বেগতি দেখে আমাদের প্রতিপক্ষ শামীমা আদালতে গিয়ে পাঁচলাইশ থানার ওসি এবং তদন্তকারী অফিসার ও আমার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ বানোয়াট, মিথ্যা, হয়রানিমূলক মামলা করেন। এমন মিথ্যা মামলায় পুলিশ প্রশাসনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ও সুনাম নষ্ট করার জন্য এবং আমাকে হয়রানি করার জন্য সংশ্লিষ্ট আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করি। আমার ও পুলিশ বাহিনীর উপর মিথ্যা মামলার সুষ্ঠু বিচারের জন্য সিএমপি কমিশনারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।  

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম ও মোহাম্মদ গাফফার হোসেন প্রমুখ। 

এর আগে গত ১৭ আগস্ট চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অলি উল্লাহর আদালতে নগরের পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজিম উদ্দিন মজুমদার, উপ পরিদর্শক (এসআই) মো. জাকির ও ডা.আহমেদ ফায়সাল চৌধুরী বিরুদ্ধে ৫০ লাখ টাকার চাঁদা দাবি, মিথ্যা মামলায় জড়ানো ও বাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টার অভিযোগে অভিযোগে মামলা করে শামীমা ওয়াহেদ নামে এক নারী। মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রোকে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।