পুরান ঢাকায় অবরোধ করে কোটা বাতিলের দাবি জবি শিক্ষার্থীদের

0
7

সরকারি চাকরিতে সব ধরনের কোটা বাতিল করে ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহালের দাবিতে টানা চতুর্থ দিনের মতো বিক্ষোভ মিছিল ও ছাত্র সমাবেশ করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা পুরান ঢাকার বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে কোটা বাতিলের চার দফা দাবি জানান।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দুপুরে ‘বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন’এর ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি পুরো ক্যাম্পাস ঘুরে প্রধান ফটকের সামনের রাস্তা এক ঘন্টা অবরোধ করে রাখেন। এরপর বিক্ষোভ মিছিলটি ভিক্টোরিয়া পার্ক থেকে শুরু হয়ে রায়সাহেব বাজার মোড় অবরোধ করেন।

এ-সময় সদরঘাট, বাংলাবাজার, লক্ষীবাজার, তাঁতিবাজার, ধোলাইখাল, যাত্রাবাড়ি, নবাবপুর, বংশাল, গুলিস্তান সহ সব ধরনের রুটে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। শিক্ষার্থীরা আধাঘন্টার বেশি সময় ধরে রায়সাহেব মোড় অবরোধ করে পুনরায় মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্যে দিয়ে চতুর্থ দিনের আন্দোলন সমাপ্ত করেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের চার দফা দাবি মানা না হলে পুরো পুরান ঢাকাকে অচল করে দেব আমরা। স্বাধীনতার ৫৪ বছরে এসে আমাদের কোনো কোটা আন্দোলন করতে হবে। এদেশের মুক্তিযোদ্ধারা বৈষম্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে তাহলে কেন আমাদের আবার কোটার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে। একটা দেশের সরকারি চাকুরিতে যদি ৫৬ শতাংশ কোটা থাকে তাহলে মেধাবীরা মাত্র ৪৪ শতাংশের জন্য লড়াই করবে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী জসীম উদ্দিন বলেন, সব ধরণের কোটা বাতিল করা আমাদের দাবি, তবে সরকার চাইলে শুধু প্রতিবন্ধী কোটা রাখতে পারে। আমাদের চার দফা দাবি মানা না হওয়া পর্যন্ত আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাব।