বান্দরবান তালাবদ্ধ ঘর থেকে প্রবাসীর স্ত্রী সন্তানসহ ৩জনের লাশ উদ্ধার, আটক ৬

0
14

রিজভী রাহাত, বান্দরবান থেকে :: বান্দরবানের লামা পৌরসভার চাম্পাতলী এলাকায় কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদ এর বসতঘরের দরজা ভেঙ্গে মেঝেতে পড়ে থাকা অবস্থায় স্ত্রী সন্তানসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে লাশগুলো উদ্ধারের পর ২২মে (শনিবার) সকালে ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে আনা হয়। লাশগুলোর মধ্যে রয়েছে কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদ এর স্ত্রী মাজেদা বেগম (৪০) তার সন্তান রাফি (১৩) এবং ১০ মাস এর সন্তান নুরী।

পুলিশ জানায়, লাশ উদ্ধার করে ভোরে বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে লাশগুলো আনা হয় এবং এরপরই লাশের ময়না তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

বান্দরবানের লামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.মোস্তফা জামাল জানান,ঘটনাটি খুবই দু:খজনক। ঘরে তালাবদ্ধ করে এক নারী ও তার দুই সন্তানকে হত্যার ঘটনায় পুরো লামা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে,আমরা চাই এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদের দ্রুত আটক করে যথাযথ শাস্তি প্রদান করা হোক।

বান্দরবানে লামা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.রেজওয়ানুল ইসলাম জানান, হত্যাকান্ডের ঘটনায় লামা থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। বাড়ীর কর্তা নুর মোহাম্মদ কুয়েত প্রবাসী হওয়ায় মামলার বাদী কে হচ্ছে তা এখনো নির্ধারিত হয়নি। বান্দরবানে লামা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.রেজওয়ানুল ইসলাম আরো জানান,ঘটনার পরপরই তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তিনি আরো জানান, লাশের ময়না তদন্ত শেষে মামলা দায়েরের প্রেক্ষিতে পিবিআই এর কাছে মামলাটি হস্তান্তর করা হবে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (২১ মে) সন্ধ্যায় বান্দরবানের লামা পৌরসভার চাম্পাতলী এলাকায় কুয়েত প্রবাসী
নুর মোহাম্মদ এর তালাবদ্ধ ঘর থেকে তার স্ত্রী মাজেদা বেগম (৪০) তার সন্তান রাফি (১৩) এবং ১০ মাস এর সন্তান নুরী এর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ তবে এই ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।