রাজকোষ শূন্য, দেশটা তিন মাস যে চলবে সে পরিমান অর্থ ব্যাংকে নেই- রিজভী

0
16

সরকার একের পর এক মানুষের অধিকার হরণ করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, যত দিন যাচ্ছে সরকারের সব কুর্কীর্তি বেরিয়ে আসছে। দেশ এক শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা অতিক্রম করছে। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

লুটপাট আর দুর্নীতির কারণে দেশের রাজকোষ শূন্য হয়ে গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশটা তিনমাস যে চলবে, সেই প্রয়োজনীয় অর্থ এখন ব্যাংকে নেই। যারা ঋণখেলাপি হয়েছেন এক লাখ বিরানব্বই হাজার কোটি টাকার, তাদের নিয়ম করে সুদ মওকুফ করে দেওয়া হয়েছে। যারা লুটপাট করেছে, টাকা পাচার করেছে তারা সবাই ক্ষমতাসীনদের ঘনিষ্ঠ লোক।

সেইসঙ্গে ছাত্রদল নেতা আতিকুর রহমান রাসেলকে অবিলম্বে তার বাবা-মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রিজভী। গত ১ জুলাই আতিকুর রহমান রাসেলকে গোয়েন্দা পরিচয়ে তুলে নেওয়া হয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো তাকে পরিবারের কাছে বা আদালতে হস্তান্তর করা হয়নি। তার বাবা-মায়ের যে আকুতি তা ভাষায় বর্ণনা করার মত নয়। তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যে তুলে নিয়ে গেছে তা অনেকে দেখেছেন এবং তিনি গোয়েন্দা হেফাজতে রয়েছে বলে দাবি করেন রিজভী।

দেশ এক শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা অতিক্রম করছে উল্লেখ করে বিএনপির এ শীর্ষ নেতা বলেন, মানুষের অধিকারগুলো দখলদার সরকার একের পর এক হরণ করেছে। মানুষ অধিকার বঞ্চিত, গণতন্ত্রে মানুষের যে অধিকারগুলো স্বীকৃত সে অধিকারগুলোকে মানুষ যাতে প্রয়োগ করতে না পারে তারজন্য রাষ্ট্রশক্তিকে এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা ইচ্ছে পূরণ করতে পারেন। এজন্য বাংলাদেশের সংবিধান কাটাছেঁড়া করার পরও গণতন্ত্রের যে অধিকারগুলো আছে, সেই অধিকারগুলো সরকারি যন্ত্র দিয়ে নানাভাবে দমন করছেন। এই দমন পৈশাচিক, এই দমন নিষ্ঠুর, এই দমন রক্তাক্ত।এ সময় আরও ছিলেন ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রাকিব ও সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন নাছির প্রমুখ।