লকডাউনের নামে রাস্তা বন্ধ করে ডাকাতি

0
244

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলায় লক ডাউনের নামে চলছে অবৈধভাবে রাস্তা বন্ধ করে প্রতিবন্ধকতা। যার ফলে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চলছে মারাপিটের ঘটনা। অতি উৎসাহিত কিছু সুবিধাবাদী লোক প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এসব অপকর্ম ও দাদাগিরি করতে দেখা যাচ্ছে, ফলে সৃষ্টি  হচ্ছে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সংঘাত।

উপজেলার বার আউলিয়া এলাকায় লকডাউনের নামে গ্রাম্য রাস্তা অবরোধ করে দেয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশ-গ্রামবাসীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় পুলিশ গ্রামবাসীকে লক্ষ্য করে ১৫/২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে এবং গ্রামবাসী পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে সীতাকুণ্ড উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের ফুলতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সূএে জানা যায়, স্থানীয় একটি সিন্ডিকেট শিপব্রেকিং ইয়ার্ডের গাড়ি প্রবেশ করতে না পারে, সেজন্যে বাঁশ দিয়ে শিপব্রেকিং ইয়ার্ডের গাড়ি চলাচল তথা গ্রামের রাস্তাটি বন্ধ করে দেয় কয়েকদিন আগে তথা কতিথ লক ডাউন হিসেবে । যার ফলে লোকমান হোসেনের মালিকানাধীন জিরি সুবেদার শিপব্রেকিং ইয়ার্ডের কোন গাড়ি প্রবেশ করতে পারছিল না ইয়ার্ডে।

বিষয়টি ইয়ার্ড কৃর্তপক্ষ পুলিশকে জানালে গতকাল ১০ এপ্রিল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সীতাকুণ্ড থানার পুলিশ ফোর্স   উক্ত রাস্তা থেকে ব্যারিকেড তোলে দেয়। এ সময় গ্রামবাসীর সাথে পুলিশের তর্ক-বির্তক শুরু হয়।  দুইপক্ষের মধ্যে বেশ উত্তেজনা পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে  পুলিশ ১৫/২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে।

জিরি সুবেদার শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ডের বলেন , গ্রামের কিছু ব্যক্তি লকডাউনের নামে রাস্তা বন্ধ করে ইয়ার্ডে ডাকাতি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে, কয়েকদিন আগেও তারা দারোয়ানকে মেরে ইয়ার্ডে ডাকাতি করেছে। এলাকার কিছু ডাকাত ও মাদকসেবী মিলে এই কাজ গুলো দীর্ঘদিন যাবত করছে। করোনাভাইরাসের প্রভাবে দেশ যখন পরিস্থিতির শিকার তখন আমরা উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি এখান নিয়ে   উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে।

এ বিষয়ে সীতাকুণ্ড থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ হোসেন মোল্লা সিএনএন কে বলেন, এলাকাবাসী বাঁশ দিয়ে রাস্তা চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে  উত্তেজিত গ্রামবাসী আমাদের উপর ইট পাথর ছুঁড়ে মারে।পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে।

এদিকে খবর পেয়ে রাতে ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে  আসেন  এএসপি (সীতাকুণ্ড) সার্কেল শম্পা রানী শাহা।তিনি গিয়ে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে