সাংবাদিকদের ড. ইউনূসের দুর্নীতির তদন্ত করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী 

0
9

গ্রামীণ ব্যাংকের সাবেক এমডি নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসের দুর্নীতির তথ্য অনুসন্ধান করতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (২২ জুন) সকাল ১১টায় তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ আহ্বান জানান। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি তদন্ত করলে তো বলবেন প্রতিহিংসাপরায়ণ।

প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই দেশবাসীর সামনে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির বর্তমান অবস্থা তুলে ধরেন। এরপর তিনি পদ্মা সেতু প্রসঙ্গে কথা বলেন। পরে প্রশ্নোত্তর পর্বে পদ্মা সেতু সম্পর্কিত আরও বিভিন্ন বিষয় উঠে আসে। প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্যেও পদ্মা সেতুর বিরুদ্ধে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র এবং এই প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়ন বন্ধ হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরেন।

প্রশ্নোত্তর পর্বে এক সাংবাদিক ড. মুহাম্মদ ইউনূস কোনো একটি ফাউন্ডেশনে ছয় মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ দিয়েছিলেন এমন তথ্য রয়েছে উল্লেখ করে এ বিষয়ে তদন্ত হবে কি না জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা তো সাংবাদিক। আপনারাও তো তদন্ত করতে পারেন, কিন্তু তদন্ত করেন না। আপনারা তদন্ত করুন। একজন ব্যাংকের এমডি হয়ে কোনো ফাউন্ডেশনে এত অর্থ কীভাবে দেন? আপনারা অনুসন্ধান করুন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমি (তদন্ত) করতে গেলে তো আবার বলবেন আমি প্রতিহিংসাপরায়ণ। তাই আপনারা খুঁজে বের করলেই ভালো হয়।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় ড. ইউনূসের কোন ব্যাংকে কত টাকা আছে, কোন ব্যাংক থেকে কত টাকা সরিয়েছেন সাংবাদিকদের সেগুলো খুঁজে বের করতে বলেন। তিনি এ সময় প্রশ্ন রাখেন কোনো ফাউন্ডেশন বা ট্রাস্ট করে তার টাকা কীভাবে ব্যক্তিগত হিসাবে চলে যায়? এক চেকে ছয় কোটি টাকা তুলে নিয়ে ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে জমা করে সেই টাকা উধাও (ভ্যানিশ) করে দেয়া হলো!

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, এগুলো তো বেশি দিন আগের কথা নয়। ২০২০ সালের কথা। অ্যাকাউন্ট নম্বর তো আছেই। আপনারা অনুসন্ধান করে তথ্য বের করুন। তারপর ব্যবস্থা নেয়ার প্রয়োজন হলে আমরা নেব।

উল্লেখ্য, এর আগে বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুতে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়ন বন্ধের পেছনে ড. ইউনূসের হাত রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন।