সিআরবি ও পরিকল্পিত উন্নয়ন ইস্যুতে চট্টগ্রামের মন্ত্রী এমপিদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে

চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে বক্তারা

0
18

নিউজ ডেস্ক, চট্টগ্রাম :: চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল ৩১ জুলাই শনিবার রাতে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ফোরামের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট আইজীবী ব্যারিস্টার মনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। ফোরামের মহাসচিব মো. কামালউদ্দিনের সঞ্চলনায় এতে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও মহানগর আওয়ামীগ সহ সভাপতি এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন বাবুল, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এম এ ছালাম, ফোরামের ভাইস চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খালেদ, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট এনামুল হক, চট্টগ্রাম জেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি লেয়াকত উল্লাহ, ফোরামের যুগ্ন সম্পাদক ডাক্তার নাহিদা খানম, চট্টগ্রাম বিশবিদ্যালয়ের অধ্যাপক হোসাইন কবির, কাজী গোলাপ রহমান, গণমাধ্যম কর্মী শাওন ইমতিয়াজ, সংগঠক তসলিম খাঁ, কানিজ ফাতিমা লিমা, সাহিত্য কর্মী কাজী আনারকলি, কামরুল ইসলাম, এজিএম জাহাঙ্গীর আলম, ইমতিয়াজ আহমেদ এফসিএ , আনিসুল ইসলাম. মোহাম্মদ ফোরকান, মো. কাওসার ফারুক, শারুদ নিজাম, এস.এম আমিনুল ইসলাম প্রমুখ |

এতে নেটওয়ার্ক অসুবিধার কারণে আনেকে সভায় যুক্ত হতে পারেননি। এদের মধ্যে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান সহ অনেকেই।

সভায় বক্তারা বলেন, চট্টগ্রামের পরিকল্পিত উন্নয়ন প্রত্যাশী এবং জলবদ্ধ মুক্ত মহানগরী প্রত্যাশী নাগরিকদের সংগঠন হিসাবে চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরাম ইতিমধ্যে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে | ২০১৫ সালের ৩১ জুলাই চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের জন্ম হলেও এই সংগঠনের চেয়ারম্যান সহ অন্যান্যরা এর আগেও অনেক বছর ধরে চট্টগ্রামের উন্নয়নে জন্য চট্টগ্রামবাসীর পক্ষ থেকে বিভিন্ন নায্য দাবি দাওয়া তুলে ধরেছেন এবং সাফল্যজনক আন্দোলনও করেছেন।

সভায় চট্টগ্রাম উন্নয়ন আলোচনা করতে গিয়ে এসে পড়ে চট্টগ্রামের সিআরবিতে প্রাইভেট হাসপাতাল নির্মাণের প্রসঙ্গটি। বক্তারা এই বিযয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সঠিকভাবে চট্টগ্রামবাসীর উৎকণ্ঠার এই বিষয়টি তুলে ধরা হচ্ছে কিনা এ ব্যাপারে কিছু শংকা রয়েছে। বক্তারা চট্টগ্রামের প্রতিনিধিত্বকারী মন্ত্রী, এম পি দের ঐক্যবদ্ধভাবে বিষয়টি নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে সরাসরি কথা বলার জন্য আহবান জানানো হয় |

বক্তারা আরো বলেন, চট্টগ্রামবাসী হাসপাতাল চায় এবং আধুনিক হাসপাতালের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। এখানে গরীব জনগণের জন্য চিকিৎসার অসুবিধা রয়েছে এমনকি যারা অবস্থাপন্ন তাদের জন্যও যথাযথ চিকিৎসার অভাব রয়েছে। কাজেই সরকারীভাবে এখানে হাসপাতাল হউক এটা নাগরিক ফোরামের দীর্ঘদিনের দাবি। বর্তমান হাসপাতাল সম্প্রসারণ এবং আধুনিকীকরণের পাশাপাশি চট্টগ্রাম মহানগরীতে এবং মহানগরীর বাহিরে ৪ টি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার জন্য চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরাম দাবি জানিয়ে আসছে। কাজেই হাসপাতালের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে কিন্তু সেটি যেন কোন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর লাভের জন্য সরকারী তথা জনগণের সম্পদের বিনিময়ে নয়।

বক্তারা এখানে হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার বিষয়টির সাথে সিআরবি এলাকায় যে কোন নির্মাণ কাজ, যেটি পরিবেশের ক্ষতি করবে ও গাছগুলি কাঁটাতে হবে সে ধরণের প্রজেক্ট কোন অবস্থাতেই চট্টগ্রামবাসী মেনে নিবে না বলে জানান। তারা চট্টগ্রামবাসীর এই ঐক্যবদ্ধ মতামতের উপর যথাযথ সম্মান প্রদর্শনের জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরাম চট্টগ্রামের জনগণকে দলমত নির্বিশেষে কাজ করে অনেক সীমাবদ্ধতা থাকা স্বত্ত্বেও যতটুকু অর্জন করতে পেরেছে তাতে চট্টগ্রামবাসীই উপকৃত হয়েছে বলে বক্তারা উল্লেখ করেন এবং দলীয় রাজনীতির উর্ধে থেকে এই ধরনের ফোরামের গুরুত্ব এবং প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে একমত প্রকাশ করেন।

চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের এই প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ফোরামের ভাইস চেয়ারম্যান মরহুম মোহাম্মদ উল্লাহর প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়। জনাব উল্লাহ গতবছর করোনাভাইরাস জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে আকর্শিকভাবে মৃত্যুবরণ করেছিলেন।