সীতাকুন্ডে দেওয়ান দিঘি ভরাটের মহাউৎসব নিরব প্রশাসন

0
194


কামরু জামান কামরুল ::ভুমিদুস্যর কবলে পড়ে প্রায় পাঁচশত বছরের পুরনো দেওয়ান দীঘি ভরাট করে প্রতি নিয়ত তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন ভবন দেশের করোনার সুযোগ নিয়ে সিতাকুন্ডের এক শ্রেণির স্বার্থলোভি মহল এই কাজ করছে বলে জানায়ায।স্থানীয় প্রশাসনের নিরবতায় এলাকা বাসিদের মধ্যে বাড়ছে ক্ষোভ। এই দীঘির পুরনো ইতিহাস নিয়ে সীতাকুন্ডের বাসিন্দা মাস্টার রতন মিত্র বলেন সনাতন ধর্মালম্বী জমিদার প্রজাদের পানি সমস্যা সমাধানে প্রায় পাঁচশ বছর আগে দিঘীটি খনন করে ছিলেন। হিন্দু অধ্যূষিত এই এলাকার লোকজন বিভিন্ন পূজা, পার্ববনসহ ধর্মীয় অনুষ্ঠান দিঘির পাড়েই সম্পন্ন করতেন। দীঘিটির কোন সঠিক ইতিহাস জানা না গেলেও তারা বংশ পরম্পরায় জেনে এসেছেন বিগত ৫-৬ পুরুষ ধরে এই এলাকার পানির প্রধান একমাত্র উৎস দীঘিটি। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, বর্তমানে দীঘিটির উত্তর, পাড়ে ভবন নির্মাণ চলছে পুরোদমে । পূর্বপাড়ে দোকান পশ্চিম ও দক্ষিণ পাড়ে বাসাবাড়ি সঠিক ভাবে আইনের বাস্তবায়ন হচ্ছে না বলে এই চক্রকে থামানো যাচ্ছে না। বর্তমানে দিঘিটির মালিকানা আছেন সীতাকুন্ড স্্রাইন কমিটি,অভিযোগ রয়েছে কমিটির কিছু লোকদের সাথে আঁতাত করে দীর্ঘদিন যাবত একটি ভুমিদুস্য চক্র মিলে সীতাকুন্ড ¯্রাইন কমিটির বিভিন্ন জায়গা দখলের পায়তারা চালিয়ে আসছে এই নিয়ে সীতাকুন্ড ¯্রাইন কমিটির সাধারন সম্পাদক বলেন আমাদের মধ্যে কিছু লোক জরিত থাকার খবর আমি পেয়েছি তবে আমি জরুরি ভাবে আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি। দিঘির চারপাশ অবৈধ দখলদার পানি ও জলসয় দখলে থাকা ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানের ব্যপারে অজ্ঞাত কারণে নিরব রয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর এই বিষয়ে জানতে চাইলে পরিবেশ অধিদপ্তরের নাজিম শেখ এই বলেন, নিউজ করে আপনারা আমাদের উপপরিচালকের বরাবর পাঠিয়ে দিবেন তখন ব্যবস্থা নিব ।পরিবেশ অধিদপ্তরের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে