করোনা ভ্যাকসিনে বিশ্বের সব মানুষের অধিকার থাকতে হবে: ড. ইউনূস

0
10
  • ফাইজার ও বায়োএনটেক’র ভ্যাকসিন আসছে ডিসেম্বরে
  • সবার জন্য টিকা প্রচারণা

নিউজ ডেস্ক :: জার্মান সংস্থা বায়োএনটেক-এর সঙ্গে মিলে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করেছে মার্কিন ঔষধ সংস্থা ফাইজার। সোমবার প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তাদের তৈরি ভ্যাকসিন মানবদেহে কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। সব ঠিক থাকলে আসছে ডিসেম্বরেই বাজারে আসবে এই টিকা। এতে আশাবাদী হয়ে উঠেছেন অনেকে। প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, প্রথমে কারা এই টিকা পাবে।
‘সবার জন্য টিকা’-এমন চিন্তা থেকে একটি প্রচারণা শুরু করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূস। তার এই উদ্যোগে অনেক রাষ্ট্র প্রধান, নোবেলজয়ী, রাজনীতিবিদ, শিল্পী, এনজিওসহ বহু প্রতিষ্ঠান সমর্থন জানিয়েছে। করোনা মহামারির শুরু থেকেই ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে তাকে ‘গ্লোবাল কমন গুড’ ঘোষণার জন্য ড. মুহাম্মদ ইউনূস উদ্যোগী হন। গ্লোবাল কমন গুডের অর্থ করোনার ভ্যাকসিনের উপর বিশ্বের সব মানুষের সমান অধিকার থাকতে হবে, যেমন আলো-বাতাসের উপর সবার সমঅধিকার রয়েছে।

এ নিয়ে কাজ করা পিপলস ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স নামক প্রচারণার পক্ষ থেকে পোস্ট করা একটি টুইট ইউনূস সেন্টার তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে পোস্ট করেছে। এতে বলা হয়, খুব ভালো খবর যে, ফাইজার ভ্যাকসিন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। কিন্তু বড় ঔষধ কোম্পানির মুনাফা এবং একচেটিয়া ব্যবসা করার অর্থ সময়মতো পর্যাপ্ত পরিমাণে ডোজ উৎপাদন করা যাচ্ছে না। ফাইজার এবং বায়োএনটেককে অবশ্যই তাদের ভ্যাকসিন প্রযুক্তিটি প্রকাশ এবং অন্যদের সঙ্গে ভাগ করে নিতে হবে- যাতে করে সারা বিশ্বের জন্য প্রয়োজনীয় শত শত কোটি ডোজ ভ্যাকসিন এখন সম্ভাব্য সবচেয়ে কমমূল্যে উৎপাদন করা যায়। অন্যথায় কোটি কোটি মানুষ যাদের এই ভ্যাকসিনের জরুরি প্রয়োজন, ভাগ্যবঞ্চিত হবে। বিশ্ব অপেক্ষায় বসে থাকতে পারে না। ঢাকাস্থ ইউনূস সেন্টার, পিপলস ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স-এর অন্যতম সদস্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে