করোনা হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৭৮৩ রোগী

0
153

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার্থে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ঘোষিত রাজধানী ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১১ হাজারেরও বেশি রোগী ভর্তি হন। তাদের মধ্যে ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭ হাজার ৭৮৩ জন। বর্তমানে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ২ হাজার ৬৭৬ জন। বেশিরভাগ রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাকালে মৃত্যু হয় ৫৭০ জনের।

বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের মধ্যে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাপ্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ৩৬২ জন। বর্তমানে বিভিন্ন হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি আছেন ৮৭ জন রোগী।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোন হাসপাতালে কত রোগী ভর্তি হন

কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতাল ৮৭৬ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ১ হাজার ৮৬০, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (বার্ন ইউনিট-১) ২ হাজার ৮২০, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ৭২৫, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতাল ২ হাজার ৭৪৩, রিজেন্ট হাসপাতাল উত্তরা ২৫৮, রিজেন্ট হাসপাতাল মিরপুর ৪১৮, সাজেদা ফাউন্ডেশন কাঁচপুর ১৬৫, ঢাকা মহানগর হাসপাতাল ৩৬০,সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল ৩৬, লালকুঠি হাসপাতাল মিরপুর ১৮৭, রেলওয়ে হাসপাতাল ঢাকা ৪৪, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ৪১১ এবং আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৯৪ জন চিকিৎসা গ্রহণ করেন।

কোন হাসপাতাল থেকে কত রোগী সুস্থ হলেন

কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে ৬৪৫ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ১ হাজার ৩৩৫, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (বার্ন ইউনিট-১) ২ হাজার ১৩৩, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ৩৬৫, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ১ হাজার ৮৮০, রিজেন্ট হাসপাতাল উত্তরা২৩৮, রিজেন্ট হাসপাতাল মিরপুর ৩৮১, সাজেদা ফাউন্ডেশন কাঁচপুর ১১০, ঢাকা মহানগর হাসপাতাল ৩১৪, সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল ৩২, লালকুঠি হাসপাতাল মিরপুর ১৪৪, রেলওয়ে হাসপাতাল ঢাকা ২৫, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ১৭৭ এবং আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪ জন সুস্থ হন।

বর্তমানে কোন হাসপাতালে কত রোগী ভর্তি

কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে ১২৯ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ৩৮৫, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (বার্ন ইউনিট-১) ৫৫৫, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ২৬৯, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতাল ৮৪৯, রিজেন্ট হাসপাতাল উত্তরা ১৮, রিজেন্ট হাসপাতাল মিরপুর ৩৫, সাজেদা ফাউন্ডেশন কাচপুর ৩৬, ঢাকা মহানগর হাসপাতাল ৪৩, সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল ৪, লালকুঠি হাসপাতাল মিরপুর ৪০, রেলওয়ে হাসপাতাল ঢাকা ১৯, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ২২২ এবং আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৭২ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন।

আইসিইউতে চিকিৎসাপ্রাপ্ত মোট রোগীর সংখ্যা

কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে ৫৬ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ৮৪, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (বার্ন ইউনিট-১) ৮৬, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ৪০, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতাল ২২, রিজেন্ট হাসপাতাল উত্তরা ৬, রিজেন্ট হাসপাতাল মিরপুর ৪, সাজেদা ফাউন্ডেশন কাঁচপুর ২৯, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ১৯ এবং আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন।

কোন হাসপাতা‌লে কতজন আই‌সিইউ‌তে চি‌কিৎসাধীন

কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতারে ১০ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ১০, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (বার্ন ইউনিট-১) ১৪, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ১০, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতাল ১৪, রিজেন্ট হাসপাতাল উত্তরা ৫, রিজেন্ট হাসপাতাল মিরপুর ৫, সাজেদা ফাউন্ডেশন কাঁচপুর ৪, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ৬ এবং আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৯ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে