‘বিএনপির নেতৃত্ব আসে ইংল্যান্ড থেকে, আমি ইংল্যান্ডের নেতৃত্ব মানি না’

0
19

‘বিএনপির নেতৃত্ব আসে ইংল্যান্ড থেকে। আমি ইংল্যান্ডের নেতৃত্ব মানতে মানি না’ বলে মন্তব্য করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী।ঐতিহাসিক পতাকা উত্তোলন দিবসের ৫০ বছর উপলক্ষে মঙ্গলবার (২ মার্চ) বিকালে সুপ্রিম কোর্ট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আমরা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট করেছিলাম। আমার কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সেখানে অংশগ্রহণ করেছিল। ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আমি অংশগ্রহণ করি। কিন্ত গিয়ে দেখলাম, ড. কামাল হোসেন নেতৃত্ব করেন না। নেতৃত্ব করে বিএনপি এবং বিএনপির নেতৃত্ব আসে ইংল্যান্ড থেকে। আমি ইংল্যান্ডের নেতৃত্ব মানতে রাজি না। জাতীয় ঐক্য জাতিকে নিয়ে করতে হবে। রাজনীতি করতে হলে মাঠে আসতে হবে। বিএনপিকে গণতান্ত্রিক হতে হবে। মানুষকে মর্যাদা দেয়া শিখতে হবে, তারপরে রাজনীতি করতে হবে।’HEREতিনি বলেন, ‘ক্ষমতা এত সোজা কথা না। আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাকে স্বীকার না করি, তাহলে শুনুন আমি আপনাদের সবার সামনে বলছি, তারেক রহমানের পরিবর্তন না হলে তাকেও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মেনে নেয়ার মানুষ আমি না। তাকে উপযুক্ত হতে হবে।’ তারেক রহমানের এমন সব সমালোচনা করলেও বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের গুণকীর্তন করে বঙ্গবীর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বহুবার বলেছেন, বিএনপি দুর্নীতিবাজ । এটাকে প্রমাণ করার জন্য তিনি বার বার বলেছেন, জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর খালেদা জিয়া দেখেছেন ভাঙ্গা সুটকেস আর ছেড়া গেঞ্জি। এটাই যদি সত্য হয় তাহলে জিয়াউর রহমান ছিলেন একজন সৎ মানুষ। তিনি ছেড়া গেঞ্জি আর ভাঙ্গা সুটকেস রেখে গেছেন। আর তার সন্তান যদি হাজার হাজার কোটি টাকার মালিক হয় তাহলে তিনি নেতা নন। দেশের মানুষের আস্থাভাজন হতে পারে না। যিনি দেশের নেতা হবেন তার সম্পদের পাহাড় হবে না। সম্পদ আর নেতৃত্ব এক সাথে চলে না। এটা রাত দিনের মত পার্থক্য।’ এরপর ঐতিহাসিক পতাকা উত্তোলন দিবস উপলক্ষ্যে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আজকে দেশ আর দেশ নেই। যদি থাকতো তাহলে আ স ম আব্দুর রবের এই পতাকা উত্তোলন দিবস তাকে পালন করতে হত না। সরকার পালন করতো, সারা বাঙ্গালি জাতি পালন করত।’